শার্শার সেবা ক্লিনিকে ভূয়া ডাক্তার : ভ্রাম্যমান আদালতে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

জসিম উদ্দিন, বেনাপোল : যশোরের শার্শা উপজেলার নাভারণ বাজারের সেবা ক্লিনিকে

‘ভুয়া ডাক্তার’ হিসাবে ধরা খেলেন ক্লিনিকের মেডিসিন, হৃদরোগ, নবজাতক ও শিশু-কিশোর রোগ অভিজ্ঞ ডা: এস এম মাহফুজ হোসেন।

ডাক্তারী কোন নিবন্ধন ছাড়াই দীর্ঘদিন ধরে তিনি সেবা ক্লিনিকে রুগি দেখছিলেন। ভ্রাম্যমান আদালতে ঠিক এমনি একটি অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে ঐ ডাক্তারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সহকারী কমিশনার (ভুমি) খোরশেদ আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এসময় তিনি জানান, অভিযানকালে দেখা যায়, ডা. এস এম মাহফুজ হোসেন BM&DC রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই এলোপ্যাথিক চিকিৎসা প্রদান করছেন।

তিনি ভারতের সুরাবালা মেডিকেল কলেজ  থেকে ৫বছর মেয়াদি MBBS কোর্স করেছেন কিন্তু তার কোন উপযুক্ত প্রমাণ দেখাতে পারেন নাই।

মেডিকেল এবং ডেন্টাল কাউন্সিল আইন, ২০১০ অনুযায়ী একজন মেডিকেল চিকিৎসক নিবন্ধন ছাড়া এলোপ্যাথি চিকিৎসা করতে পারবেন না।

নিবন্ধন ছাড়া মেডিসিন, হৃদরোগ, নবজাতক ও শিশু-কিশোর রোগ অভিজ্ঞ হিসেবে এলোপ্যাথিক চিকিৎসা প্রদান করায় এস.এম. মাহফুজ হোসেনকে মেডিকেল এবং ডেন্টাল আইন, ২০১০ অনুযায়ী ৫০০০০/(পঞ্চাশ) হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয় এবং BM&DC এর নিবন্ধনের পূর্বে এলোপ্যাথিক চিকিৎসা সংক্রান্ত সব ধরণের কার্যক্রম থেকে নিজেকে বিরত রাখবো মর্মে অঙ্গীকার নামা নেওয়া হয়।

সব ধরনের অনিয়ম দূর্ণীতির বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।