রেমিটেন্সের ইতিহাসে নতুন রেকর্ড

প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সে নতুন রেকর্ড গড়েছে বাংলাদেশ। ২০২০ সালের শুরুতেই জানুয়ারি মাসের ১৫ দিনেই প্রায় ১ বিলিয়ন ডলার রেমিটেন্স এসেছে।

আর ২০১৯-২০ অর্থবছরের সাড়ে ছয় মাসে, ২০১৯ সালের ১ জুলাই থেকে ২০২০ সালের ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত এক হাজার ৩০ কোটি (১০.৩৬ বিলিয়ন) ডলার রেমিটেন্স এসেছে।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংক রেমিটেন্স প্রবাহের সাপ্তাহিক এ তথ্য প্রকাশ করেছে। অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর) ৯৪০ কোটি ৩৪ লাখ (৯.৪ বিলিয়ন) ডলারের রেমিটেন্স এসেছিল বাংলাদেশে। যা ছিল গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ২৫ দশমিক ৪৬ শতাংশ বেশি।

এদিকে রেকর্ড পরিমাণ রেমিট্যান্স পাঠানোয় প্রবাসীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।তিনি বলেন, রেমিট্যান্স বৃদ্ধির বিষয়টি সবাই এর প্রশংসা করছেন। আস্তে আস্তে আমাদের জনগণের মধ্যেও পরিবর্তন আসছে। তারা হুন্ডি বা অন্য পন্থা বাদ দিয়ে বৈধভাবে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছে। এ পথে রেমিট্যান্স পাঠালে সরকার কোনও প্রশ্ন করছে না। এটাকে ট্যাক্স ফ্রি বিনিয়োগ হিসেবে ধরা হবে।চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর) ৯৪০ কোটি ৩৪ লাখ (৯.৪ বিলিয়ন) ডলারের রেমিটেন্স এসেছে। যা ছিল গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ২৫ দশমিক ৪৬ শতাংশ বেশি।২০১৯ সালের শেষ মাস ডিসেম্বরে ১৬৮ কোটি ৭০ লাখ রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। যা ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের চেয়ে প্রায় ৪০ শতাংশ বেশি। এক মাসের হিসাবে বাংলাদেশে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেমিটেন্স এসেছে গত ডিসেম্বরে।এখন পর্যন্ত এক মাসে সর্বোচ্চ ১৭৪ কোটি ৮২ লাখ ডলার রেমিটেন্স পেয়েছে বাংলাদেশ; ২০১৯ সালের মে মাসে।