রাণীনগরে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সামনেই সহকারী শিক্ষিকাকে চর-থাপ্পর মারলো দপ্তরী

সুকুমল কুমার প্রামানিক,রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার কাশিমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষিকাকে শিক্ষার্থীদের সামনেই চর-থাপ্পর মেরেছে স্কুলের দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী দেলোয়ার কাজী রতন। মঙ্গলবার স্কুল চলাকালীন সময়ে ওই স্কুলে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় নির্যাতিতা শিক্ষিকা স্থানীয় শিক্ষা অফিসে লিখিত অভিযোগ ও বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে রাণীনগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
নির্যাতিতা শিক্ষিকা ও ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা বলে জানা গেছে, উপজেলার কাশিমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মেইন গেটের চাবি স্কুল সংলগ্ন এক দোকানদারকে দিয়ে বাড়িতে যায় ওই স্কুলের দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী দেলোয়ার কাজী রতন। এরপর সকালে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা আসলে দোকান থেকে জিনিসপত্র যে সকল শিক্ষার্থীরা খায়না তাদেরকে বিদ্যালয়ের ভিতরে ঢুকতে দেয়া হয়না। মঙ্গলবার কয়েকজন অবিভাবকরা শিক্ষকদের কাছে এমন অভিযোগ করলে শিক্ষিকার সঙ্গে দপ্তরীর কথা কাটা-কাটি হয়। এক পর্যায়ে বিষয়টি প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন সমাধানও করে দেন। এরপর এদিন দুপুর নাগাদ ওই শিক্ষিকা ক্লাস নেয়ার জন্য রুম থেকে বের হলে দপ্তরী দেলোয়ার কাজী রতন বিদ্যালয়ের বারান্দায় এসে পথরোধ করে চরাও হয় এবং সহকারী শিক্ষিকাকে চর-থাপ্পর মারে।
এ ঘটনার ন্যায় বিচার চেয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন, সভাপতি আমজাদ হোসেন এবং নির্যাতিতা শিক্ষিকা পৃথক পৃথক ভাবে রাণীনগর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবুল বাশার শামসুজ্জামান জানিয়েছেন।
এছাড়া নির্যাতিতা ওই সহকারী শিক্ষিকা বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে দপ্তরী দেলোয়ার কাজীর বিরুদ্ধে রাণীনগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
এ ব্যাপারে রাণীনগর থানার ওসি মো: জহুরুল হক বলেন, নির্যাতিতা শিক্ষিকা বাদী হয়ে দপ্তরী দেলোয়ার কাজী রতনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। আসামী পলাতক থাকায় তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।