মান্না চলে যাওয়ার আজ ঠিক ১২ বছর

ঠিক ১২ বছর আগে ২০০৮ সালের এই দিনে চিত্রনায়ক মান্না ওরফে আসলাম তালুকদার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন। আজ সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) তার ১২ তম মৃত্যুবার্ষিকী ।

বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি মহা-নায়ক মান্নার মৃত্যুটা স্বাভাবিক মেনে নেওয়ার মত নয়। আসছে শোকাহতের দিন ভাগ্যরেখাকে বিদায় জানিয়ে কোটি দর্শককে কাঁদিয়ে আমাদের ছেড়ে চলে যান।

জীবদ্দশায় অনেক সুপারহিট চলচ্চিত্র উপহার দিয়েছেন তিনি। সে কারণে বাংলা সিনেমার দর্শক আজও মনে ঠাঁই দিয়ে রেখেছেন মান্নাকে। তার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে এফডিসির শিল্পী সমিতিতে কোরআন খতম ও বিকেলে মিলাদের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।

১৯৮৪ সালে বিএফডিসি আয়োজিত নতুন মুখের সন্ধানে কার্যক্রমের মাধ্যমে মান্না চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেন। তার প্রথম অভিনীত সিনেমা ‘তওবা’ (১৯৮৪)। মান্না প্রায় সাড়ে তিন শতাধিক সিনেমাতে অভিনয় করেছেন। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমা হচ্ছে- ‘সিপাহী’, ‘যন্ত্রণা’, ‘অমর’, ‘পাগলী’, ‘দাঙ্গা’, ‘ত্রাস’, ‘জনতার বাদশা’, ‘লাল বাদশা’, ‘আম্মাজান’, ‘দেশ দরদী’, ‘অন্ধ আইন’, ‘স্বামী-স্ত্রীর যুদ্ধ’, ‘অবুঝ শিশু’, ‘মায়ের মর্যাদা’, ‘মা বাবার স্বপ্ন’, ‘হৃদয় থেকে পাওয়া’ ইত্যাদি। ১৯৬৪ সালে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গায় জন্মগ্রহণ করেন মান্না। মৃত্যুর পর তাকে সেখানেই সমাহিত করা হয়।

মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত জনপ্রিয় এই অভিনেতা বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।