ভৈরবে ২৬ ঘন্টা পরও খোঁজ মেলেনি শিশুর লাশ

 জয়নাল আবেদীন রিটন, ভৈরব প্রতিনিধি: ভৈরবে পানিতে ডুবে মোস্তাকিন নামে (৪) বছরের শিশুর মৃত্যুর ২৬ ঘন্টা পরও খোঁজ মেলেনি লাশের সন্ধান। শিশুটির বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। খোঁজাখুজি চলছে হাওরের বিভিন্ন স্থানে । খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌচেছেন।
এ ঘটনা ঘটে মঙ্গলবার দুপুর বেলা সাড়ে বারটার সময় আগানগর ইউনিয়নের লুইন্ধা খলাপাড়া পশ্চিমমাথা এলাকায়। মোস্তাকিনের পিতা আব্দুল হাকিম জানান, বাড়ির চারিদিকে বর্ষার পানি। মঙ্গলবার দুপুরের খাবার খাওয়ার পর মোস্তাকিন সহ কয়েক শিশু মিলে বাড়ির আঙ্গিনায় খেলাধুলা করছিল। হটাৎ মোস্তাকিন পানিতে পড়ে যায় বলে মোস্তাকিনের খেলার সাথীরা আমাদের জানায়। আমরা ছুটে এসে বাড়ির চতুর্দিকে নৌকা নিয়ে অনেক খোঁজাখুজি করেও মোস্তাকিনের কোন সন্ধান মেলেনি। পরে বাধ্য হয়ে আজ বুধবার সকালে ভৈরব ফায়ার ষ্টেশনে খবর দিই। আমার ছেলের লাশের সন্ধানে আমরা এখনো খোঁজাখুজি করছি।
এলাকাবাসী জানান, মোস্তাকিনের বাবা মা গত দেড় বছর পুর্বে খলাপাড়া এলাকা থেকে এখানে এসে বাড়ি করেন। বাড়িটি হাওর অঞ্চলের মাঝখানে হওয়ায় এ্খানে লোকজন খুব বেশি একটা আসা যাওয়া করেনা। গতকাল বিকেলে খবর পাই এই বাড়ির মোস্তাকিন নামে এক শিশু পানি ডুবে যায়। তার কোন সন্ধান মিলছেনা। সেই থেকে আমরাও শিশুটির সন্ধানে অনেক খোঁজাখুজি করছি কিন্তু এখনো পর্যন্ত লাশের কোন খোজ পাওয়া যাচ্ছেনা। ভৈরব বাজার ফায়ার ষ্টেশনের ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে আমাদের লোকজন স্পটে চলে গিয়েছে। তাছাড়াও কিশোরগঞ্জ থেকে পাছঁ সদস্যের আরো একটি টিমও আসছে। শিশুটির লাশ উদ্ধার করতে আমাদের সব রকমের চেষ্টা চলছে।