বোয়ালমারীতে সিঁদ কেটে স্কুল ছাত্রীকে অপহরন থানায় অভিযোগ

মোঃ ইলিয়াম মোল্যা,  বোয়ালমারী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি : ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার সাতৈর ইউনিয়নের মুজুরদিয়া গ্রামে ৭ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ঘরের সিঁদ কেটে চেতনা নাশক ওষুধ দিয়ে অজ্ঞান করে অপহরন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে শনিবার (১৭ অক্টোবর) থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, ওই ছাত্রী স্কুলে আসা যাওয়ার পথে একই গ্রামের লাভলু (৩২) দীর্ঘদিন ধরে কুপ্রস্তাব সহ বিভিন্ন প্রস্তাব দিত।

ওই ছাত্রী তার অভিভাবকদের কাছে লাভলুর সম্পর্কে জানালে তার পরিবার লাভলুর অভিভাবকদের কাছে নালিশ করে। নালিশ করাকে কেন্দ্র করে লাভলু আরো ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এরই ধারাবাহিকতায় মাস দুয়েক আগে এক সন্ধ্যা রাতে মাছুরার হাত ধরে টানা-হেচড়া করে তার শ্লীলতা হানির চেষ্টা করে বখাটে লাবলু। গত ১৬ অক্টোবর গভীর রাতে সে সিঁদ কেটে মাছুরার কক্ষে প্রবেশ করে চেতনা নাশক ওষুধ দিয়ে মাছুরাকে অজ্ঞান বানিয়ে অপহরণ করে নিয়ে পালিয়ে যায়।

চাঞ্চল্যকর এ অপহরণের ঘটনা নিয়ে তোলপাড় চলছে গোটা এলাকায়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা রায়হান মাতুব্বর শনিবার সন্ধ্যায় বোয়ালমারী থানায় লাবলুকে একমাত্র আসামি করে লিখিত অভিযোগ দিলে থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আমিনুর রহমান ভীকটিমকে উদ্ধার সহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দায়িত্ব দিয়েছেন স্থানীয় জয়নগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস,আই নজরুল ইসলামকে। নজরুল ইসলাম বলেন, দেশজুড়ে যখন নারী নির্যাতন বিরোধী আন্দলন চলছে ঠিক সেই মুহুর্তে এমন অপরাধ মেনে নেয়া যায়না। এটা খুবই দূঃখ জনক। দ্রুত গতিতে ভীকটিমকে উদ্ধার ও অভিযুক্তকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান নজরুল ইসলাম।