বঙ্গবন্ধু বিপিএলে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে খুলনা টাইগার্স

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে খুলনা টাইগার্স। মিরপুর স্টেডিয়ামে প্রথম কোয়ালিফায়ারে রাজশাহী রয়ালসকে  ২৭ রানে হারিয়েছে দলটি। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নাজমুল হোসাইন শান্তর ৭৮ ও  মুশফিকুর রহিমের ২১ রানের ইনিংসে তিন উইকেটে ১৫৮ রানের স্কোর গড়ে খুলনা।

১৫৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৩৩ রানের মধ্যে ছয় উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় রাজশাহী রয়ালস। শোয়েব মালিক ৮০ রানের ইনিংস খেললেও ১৩১  রানে অলআউট হয়ে যায় রাজশাহী। খুলনা টাইাগার্সের পক্ষে ছয় উইকেট শিকার করেন মোহাম্মদ আমীর। তার আগুনে বোলিংয়ে ২৩ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়ে বসে রাজশাহী, এর মধ্যে ৪টি উইকেটই নেন পাকিস্তানি এই পেসার।

মহাবিপর্যয় থেকে দলকে টেনে নেয়ার চেষ্টা করেছিলেন শোয়েব মালিক। দারুণ ব্যাটিংয়ে রাজশাহী সমর্থকদের আশার আলোও দেখিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। ১৮তম ওভারে এসে শোয়েবের উইকেটটিও তুলে নেন আমির, সবমিলিয়ে ১৭ রান খরচায় নেন ৬টি উইকেট। এর পর আবু যায়েদ ৭ রান করে আউট হন। এর পর শেষ বলে শেষ উকেট মোহাম্মদ ইরফান ০ রানে আউট হলে ২৭ রানে জয় পায় খুলনা।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে অবশ্য শুরুতেই রাজশাহী বোলারদের তোপে পড়ে খুলনা। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই মোহাম্মদ ইরফানের জোড়া শিকার হন মেহেদী হাসান মিরাজ (৮ বলে ৮) আর রাইলি রুশো (০)। ১৫ রানে ২ উইকেট হারায় খুলনা।

তৃতীয় উইকেটে শামসুর রহমান শুভকে নিয়ে সেই বিপদ কাটিয়ে উঠেন নাজমুল হোসেন শান্ত, গড়েন ৬৮ রানের জুটি। ৩১ বলে ৩২ রান করে রবি বোপারার শিকার হয়ে শুভ ফিরলে ভাঙে এই জুটিটি।

তবে একটা প্রান্ত ধরে লড়াই চালিয়েই যাচ্ছিলেন শান্ত। এর মধ্যে ইনিংসের ১৮.২ ওভারে ইরফানের বলে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে পড়ে ১৬ বলে ২১ রান নিয়ে মাঠ ছাড়েন মুশফিক। খুলনার সংগ্রহটা তাই সেভাবে বাড়েনি।

শান্ত শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন ৫৭ বলে ৭৮ রানে। লড়াকু এ ইনিংসে ৭টি বাউন্ডারির সঙ্গে ৪টি ছক্কা হাঁকান বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান।