প্রতিপক্ষকে শায়েস্তা করতে মেয়েকে হত্যা করায় বাবা

প্রতিপক্ষকে শায়েস্তা করতে ১১ বছরের কন্যাকে নিজে দাঁড়িয়ে থেকে খুন করিয়েছেন এক বাবা। নির্মম এ হত্যাকাণ্ডের জট খুলেছে সিআইডি। দীর্ঘদিনের তদন্ত শেষে এক সন্দেহভাজনের স্বীকারোক্তিতে বেরিয়ে আসে আসল ঘটনা।

শিশুর সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয়স্থল বাবা-মা। কিন্তু বাবার পরিকল্পনা এবং উপস্থিতিতেই খুন করা হয় ১১ বছরের শিশু ইলমাকে। এমন নিষ্ঠুর ঘটনা ঘটেছে নরসিংদীতে। পাঁচ বছর তদন্তের পর সিআইডি উন্মোচন করেছে হত্যা রহস্য।

সোমবার (০৯ মার্চ) এক সংবাদ সম্মেলনে সিআইডি জানায়, গ্রাম্য রাজনীতিতে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতেই এ হত্যাকাণ্ড। বাবার বার বার আসামি বদল করতে চাওয়ায় সন্দেহ হয় গোয়েন্দা সংস্থাটির। এরপর দীর্ঘদিন নজরদারিতে থাকা ফুফাতো ভাই মাসুমকে আটকের পর তার জবানবন্দিতে বেরিয়ে আসে হত্যার মূল ঘটনা।

সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইমের ডিআইজি ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, মাসুমকে গ্রেফতারের পরই এই মামলার জট খোলে এবং রহস্য উন্মোচন হয়। জমি-জমা, মামলা মোকদ্দমাসহ বহুমুখী বিরোধ ছিল তাদের মধ্যে। তারা ফ্রিকোয়েন্টলি কিন্তু দল বদল করে। এ দলাদলির বলিই হচ্ছে শিশু ইলমা।

দীর্ঘদিনের পরিকল্পনা এবং কয়েক লাখ টাকায় ঘটানো হয় নির্মম এ হত্যাকাণ্ড।