না ফেরার দেশে অভিনেতা সাদেক বাচ্চু

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা সাদেক বাচ্চু আর নেই। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টা ৫ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

 

ইউনিভার্সাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. আশীষ কুমার চক্রবর্তী সাদেক বাচ্চুর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন ”আজ দুপুর ১২টা পাঁচে তিনি মারা যান।”

বেশ কিছূদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন এই অভিনেতা। তার করোনা হয়েছিল। বাচ্চুর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে মহাখালীতে অবস্থিত ইউনিভার্সাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় অভিনেতা সাদেক বাচ্চুকে আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়েছিল। আজ তিনি সা ছেড়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন।

সাদেক বাচ্চু ঢালিউডের খলনায়ক হিসেবে সমাদৃত তবে কিন্তু তিনি  নায়ক হয়েই বড় পর্দায় উপস্থিত হয়েছিলেন। ১৯৮৫ সালে রামের সুমতি চলচ্চিত্রে নায়কের ভূমিকায় তিনি বড় পর্দায় অভিষিক্ত হন। সুখের সন্ধানে চলচ্চিত্র দিয়ে খল চরিত্রে অভিনয় শুরু করেন। এরপর থেকে খল চরিত্রে অভিনয়ের জন্য অধিক জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। নব্বই দশকে এহতেশামের ‘চাঁদনী’ ছবিতে অভিনয়ের পর জনপ্রিয়তা পান খলনায়ক হিসেবে। এই পরিচয়েই দেশজুড়ে খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে সাদেক বাচ্চুর।

তিনি এখনো চলচ্চিত্রে সক্রিয় আছেন। করোনার জন্য বন্ধ কবরী সারোয়ার পরিচালিত এই তুমি সেই তুমি সিনেমার প্রথম দুই দিনের শুটিং-এ অংশ নিয়েছিলেন সাদেক বাচ্চু। এখন পর্যন্ত প্রায় ৫০০ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। অভিনয় জীবনের সর্বোচ্চ অর্জন হিসেবে ২০১৮ সালে ‘একটি সিনেমার গল্প’ চলচ্চিত্রে খলচরিত্রে অভিনয়ের জন্য পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।