তেঁতুলিয়ায় ছাগল-ভেড়ার ক্ষুরা রোগ নিয়ন্ত্রণে পিপিআর টিকার উদ্বোধন

মোঃ আহসান হাবিব, তেঁতুলিয়া (পঞ্চগড়) প্রতিনিধি: টেকনাফ হতে তেঁতুলিয়া। সেই তেঁতুলিয়া হতেই গবাদি পশু ছাগল-ভেড়ার ক্ষুরা রোগ নিয়ন্ত্রণে পিপিআর টিকার উদ্বোধন করলেন মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রনালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ। শনিবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ৯ টায় উপজেলা সদরের সিদ্দিকনগর দাখিল মাদরাসার মাঠে জেলা প্রশাসক ড.সাবিনা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ পিপিআর টিকার শুভ উদ্বোধন করেন তিনি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্যে সচিব বলেন, পিপিআর একটি মারাত্মক রোগ এবং এই প্রতিবছর বাংলাদেশে প্রচুর ছাগল ভেড়া মারা যায়।
প্রান্তিক পর্যায়ে দরিদ্র জনগোষ্ঠী আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাই তেঁতুলিয়া হতেই প্রথম এ কার্যক্রম শুরু করা হলো। এই রোগ নিয়ন্ত্রণ এবং মৃত্যুর হার কমানো গেলে দেশে মাংসের উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে। পাশাপাশি গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর আয় বৃদ্ধি পাবে। এ সময় তিনি উপজেলার প্রাণি সম্পদ কার্যালয়ের চিকিৎসকদের উদ্দেশে বলেন, সরকার এখন মানুষের দোরগোড়ায় চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে, তেমনি আপনারা বাড়ি বাড়ি গিয়ে চিকিৎসা প্রদান করবেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্য বক্তারা বলেন, ছাগলের মাংস অত্যন্ত সুস্বাদু এবং সকল ধর্মের মানুষ এই মাংস খেতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন।
ছাগলের মৃত্যুর হার রোধ করে উৎপাদন বৃদ্ধি করা গেলে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রফতানি করা সম্ভব হবে”। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব আ. রহিম, উপসচিব আজিজুল ইসলাম, প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা.আ জব্বার শিকদার, মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী শামস আফরোজ, ময়মনসিংহ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কাজী মাহমুদুর রহমান ডাবলু, নির্বাহী কর্মকর্তা সোহাগ চন্দ্র সাহা, সহকারি কমিশনার (ভূমি) মাসুদুল হক, প্রাণি সম্পাদ কর্মকর্তা কাজী মাহবুবুর রহমানসহ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ও সাংবাদিবৃন্দ। দিন ব্যাপী এ কার্যক্রমে সকাল ৭টা হতেই উপজেলার ৬৩টি ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পে ২১ হাজার ৮৩৬ টি ছাগল ভেড়াকে পিপিআর রোগের টিকা প্রদান করা হয়।