চ্যানেল এস টেলিভিশনে নিউজ প্রচারে ভাগ্য খুলেছে ৫০ হাজার মানুষের

রফিকুল ইসলাম, রাজিবপুর, কুড়িগ্রাম: গত ২০১৯ সালের ৫ জুলাই “কুড়িগ্রামের জিঞ্জিরাম নদীর উপর সেতু না থাকায় দুর্ভোগ পোহাচ্ছে স্থানীয়রা” এই শিরোনামে প্রতিনিধি রফিকুল ইসলামের পাঠানো তথ্য চিত্রে চ্যানেল এস টেলিভিশনে নিউজ প্রচারে ভাগ্য খুলেছে ৫০ হাজার মানুষের।

নিউজ প্রচারে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নজরে আসলে আগষ্ট মাসে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এমপি, রাজিবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আকবর হোসেন হিরো সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগণ ব্রীজ নির্মাণের স্থান পরিদর্শন ও জায়গা নির্ধারণ করেন।

৪ সেপ্টেম্বর রাজিবপুর উপজেলা প্রকোশলী মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ্‌ ব্রীজের নকশাসহ আবেদন পাঠান স্থানীয় সরকারের নির্বাহী প্রকৌশলী বরাবর। আবেদনের প্রেক্ষিতে ১৬ অক্টোবর ব্রীজ নির্মাণের অনুমোদন দেয়া হয় এবং ব্রীজ নির্মানের জন্য মাটিও পরীক্ষা হয়েছে।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ্‌ জানিয়েছেন, “প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর ডিও লেটারের আলোকে রংপুর জোনের চিফ স্যারের আদেশে এজিএম স্যার এসে ব্রীজের স্থান দেখে পরীক্ষা করে গেছেন। দ্রুতই জিঞ্জিরাম নদীর ব্রীজের কাজ শুরম্ন হবে আশা করছি।”

ব্রীজের অনুমোদন পাওয়ায় চ্যানেল এস রাজিবপুর প্রতিনিধি রফিকুল ইসলাম এবং চ্যানেল এস কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়ে সরকারের উন্নয়ন মূলক কাজে পাশে থাকার আহবান জানিয়েছেন উপজেলা চেয়ারম্যান আকবর হোসেন হিরো, বালিয়ামারী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহজাহান আকুলসহ স্থানীয় সর্ব স্তরের জনগণ।