করোনা আতঙ্কে ১ বছর পিছিয়েছে ইউরো ২০২০

বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাস আতঙ্কে এক বছর পিছিয়ে গেল ইউরো-২০২০। এমনটাই জানিয়েছে নরওয়েজিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এফএ)।

ইউরোপে করোনার প্রভাবে এরইমধ্যে স্থগিত হয়ে গেছে সকল ফুটবল আসর। বাকি ছিল ইউরো। মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) ইউরোর ভবিষ্যৎ নিয়ে জরুরি ভিডিও কনফারেন্সের আয়োজন করে ইউরোপীয় ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা উয়েফা।

উয়েফার ভিডিও কনফারেন্সর মাঝেই নরওয়েজিয়ান এফএ জানায়, ১১ জুন থেকে পিছিয়ে আগামী বছরের ১১ জুলাইয়ে অনুষ্ঠিত হবে এবারের ইউরো। বিবিসি’র খবরে বলা হয়েছে, এ নিয়ে মঙ্গলবার-ই চূড়ান্ত ঘোষণা দেবে উয়েফা।

ইউরোপের ১২টি ভেন্যুতে আগামী ১২ জুন থেকে ১২ জুলাই বসার কথা ছিল ইউরোর এবারের আসর। এখন ইউরো পিছিয়ে দেওয়ায় স্থগিত হয়ে যাওয়া ইউরোপিয়ান লিগের জন্য দরজা খুলে গেল।

ইউরো ছাড়াও এক বছর পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে উয়েফা ন্যাশনস লিগ এবং ইউরোপিয়ান অনূর্ধ্ব-২১ চ্যাম্পিয়নশিপও। আর ২০২১ উয়েফা ওমেন্স ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের আসর বসবে ছেলেদের ফাইনালের ঠিক ৪ দিন আগে, অর্থাৎ ওই বছরের ৭ জুলাই, ইংল্যান্ডে।

এর আগে করোনার কারণে স্থগিত হয়ে গেছে চ্যাম্পিয়নস লিগ, ইউরোপা কাপ, লা লিগা, সিরি আ’, ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, লিগ ওয়ানের মতো ইউরোপের বড় বড় সব ক্লাব ফুটবল টুর্নামেন্ট। এছাড়া বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ, চেলসি, জুভেন্টাসের মতো বেশকিছু ক্লাবের সব খেলোয়াড়কে রাখা হয়েছে কোয়ারেন্টাইনে।

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ইতোমধ্যে স্পেনে মারা গেছেন ৩৪২ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ৯৪২ জন।। বিশ্বের ১৬২টি দেশ ও অঞ্চলে এ রোগটি ছড়িয়ে গেছে। বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৮৩ হাজার ৬২ জন এবং মারা গেছেন ৭ হাজার ১৭৫ জন।