ইউক্রেনের বিমান বিধ্বস্ত: ইরানে বিক্ষোভ-সংঘর্ষ

ইরানে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ইউক্রেনের বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় দায় স্বীকার নিয়ে মিথ্যাচারের অভিযোগে দেশটির সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে ক্ষুব্ধ জনতা। এ সময় দেশটির শীর্ষ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনির পদত্যাগের দাবি জানান বিক্ষোভকারীরা।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা জানায়, ইরানের রাজধানী তেহরানে বিক্ষোভ করেন কয়েকশ’ মানুষ। অন্তত দু’টি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ হয়। বিক্ষোভকারীরা প্রথমে বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় নিহতদের শ্রদ্ধা জানাতে জড়ো হলেও বিকেলের দিকে তারা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। একপর্যায়ে নেতাদের বিরুদ্ধে স্লোগান দেয়া শুরু করেন তারা।
বিক্ষোভকারীরা এ সময় বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় দায়ীদের শাস্তি দাবি করেন। ইরানের শীর্ষ নেতা খামেনির পদত্যাগ দাবি করে ‘মিথ্যাবাদীদের মৃত্যু’ চেয়ে স্লোগান দেন তারা। তাদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে পুলিশ।
গবুধবার (৮ জানুয়ারি) তেহরানে ইউক্রেনের যাত্রীবাহী বিমান বোয়িং ৭৩৭-৮০০ (ফ্লাইট- পিএস৭৫২) বিধ্বস্ত হয়। এতে ১৭৬ আরোহীর সবাই প্রাণ হারান। তাদের মধ্যে ৮৮ ইরানি, ৬৩ কানাডিয়ান, ৯ ইউক্রেনীয়, ৪ আফগান, ৪ ব্রিটিশ ও ৩ জার্মান নাগরিক ছিলেন। এ ঘটনায় অভিযোগের আঙুল ইরানের দিকে উঠলেও তারা তা অস্বীকার করে। অবশেষে ঘটনার তিনদিন পর শনিবার কর্তৃপক্ষ স্বীকার করে, ‘অনিচ্ছাকৃত’ ভুলে ইরানি ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ভূপাতিত হয়েছে ইউক্রেনের বিমান।